Skip to content

গুগল অ্যাডসেন্স হচ্ছে গুগলের রান করা একটা প্রোগ্রাম, যার মাধ্যমে গুগল কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের সুযোগ দেয় কন্টেন্টের মধ্যে অ্যাড দেখানোর মাধ্যমে অর্থ আয় করার। এখন চলেন পুরো ব্যাপারটা সহজে বুঝি।

ধরেন আপনি ব্লগ লিখতে পছন্দ করেন। প্রচুর ঘোরাঘুরি করতে ভালোবাসেন, সেই ঘোরাঘুরির এক্সপেরিয়েন্স লিখতে পছন্দ করেন। মানুষ সেটা পড়তে মজা পায়। আপনার লেখা পড়ে অথবা বিভিন্ন ইনফো দেখে আপনার মোটামুটি হাজার দশেক মানুষের একটা ফ্যানবেস ক্রিয়েট হয়ে গেছে।

এখন আপনি চাইলেন আপনি গুগলের অ্যাডসেন্স প্রোগ্রামে অ্যাড হবেন। আপনি আপনার ব্লগের লিংক দিয়ে অ্যাডসেন্স প্রোগ্রামে অ্যাপ্লাই করেলেন। গুগল আপনার ব্লগ চেক করে যদি দেখে ব্লগের কন্টেন্ট আসলেই ভালো তবে গুগল আপনার অ্যাপ্লিকেশন এপ্রুভ করে আপনাকে বলবে তোমার সাইট রেডি। তো আপনি এরপর গুগলের অ্যাডসেন্স প্রোগ্রামের সাইটে ঢুকবেন, সেখানে কিছু কোড পাবেন (এই ব্যাপারে বিস্তারিত পরে পাবেন, এখন শুধু ধারণা নিয়ে রাখেন)। এখন এই কোডটা আপনার সাইটে অ্যাড করলেই ওয়েবসাইটের বিভিন্ন খালি জায়গায় গুগল কিছু অ্যাড দেখানো শুরু করবে।

ধরেন কোন এক পোস্টে আপনি লিখেছেন কক্সবাজারের সি-ফুড নিয়ে। সেই পোস্টের আশেপাশে গুগল booking.com এর কোন অ্যাড দেখাবে, যেখানে কক্সবাজারের হোটেল বুকিং নিয়ে কোন অফার থাকবে। আপনার ব্লগ পড়তে পড়তে কেউ যদি সেই অ্যাডে ক্লিক করে বসেন তাহলেই আপনি একটা মিনিমাম অ্যামাউন্ট পেয়ে যাবেন। আবার কেউ যদি অ্যাডে ক্লিক করে ভালো অফার পেয়ে বুকিং দিয়ে ফেলে, তাহলে গুগল হয়তো আপনাকে বেশ ভালো একটা অ্যামাউন্ট পাঠিয়ে দিবে।

ইংরেজি ব্লগ হোক অথবা বাংলা, আপনি যদি ভালো লিখতে পারেন তাহলেই আপনি গুগল অ্যাডসেন্স প্রোগ্রামে অ্যাড হতে পারেন। তবে শর্তগুলো মেইন্টেইন করা বেশ কষ্টকর। তাছাড়া আপনি হ্যানত্যান টাইপ কিছু লিখলে হবে না। কারো ওয়েবসাইট থেকে কপি মারলে হবে না। আবার পিচ্চি পিচ্চি লেখা লিখলেও হবে না। সত্যিকারের ব্লগ লিখতে হবে।

এখন জিজ্ঞেস করতে পারেন কাজের জিনিস কিনা?

আমার ব্যক্তিগত মত হচ্ছে খুবই কাজের জিনিস। যেমন আমার ওয়েবসাইটে একটা ব্লগ সেকশন আছে। সেখানে আমি মাসে একটা না একটা লেখা পাবলিশ করি। কোন কাজের লেখা না, একদম র‍্যানডম কিছু নিয়ে। মাস শেষে দেখা যায় গুগল অ্যাডসেন্স থেকে আমার আয় হয় ২৫-৩০ ডলার। আমি জানি খুবই ছোট অ্যামাউন্ট হয়তো, কিন্ত এভাবে একবার ভাবেন – আমি মাসের মধ্যে একবার আধ ঘন্টা খরচ করে একটা লেখা লিখলাম, সেই লেখা ওয়েবসাইটে পাবলিশ করে ভুলে গেলাম। কিছুই করলাম না আর। মাস শেষে গুগল আমাকে একটা অ্যামাউন্ট দিল, যেই টাকায় আমার মাসের ইন্টারনেট বিল হয়ে গেলো, লাভ না তাহলে? পছন্দের লেখাও লিখতে পারছেন, তার থেকে আয়ও হচ্ছে… ভালোই কিন্ত…

ভালো কথা… গুগল কিন্ত ২৫/৩০ ডলার করে মাসে পাঠায় না। ১০০ ডলারের একটা লিমিট আছে। আমার সেই লিমিট বেশ কম ৩ মাস পর পর পূরণ হয়, ৩ মাস পর পর গুগল ১০০ ডলার পাঠিয়ে দেয়। সবার ক্ষেত্রেই নিয়মটা সেম। ১০০ ডলার না হলে কোন ভাবেই টাকা হাতে পাবেন না।
6 views